লক্ষ্মীপুর   শুক্রবার, ৭ মে ২০২১  

শিরোনাম

প্রকৃতির এত রুপ,সবুজের আবরণে সেজেছে আপনমনে

আহাম্মদ কবির (সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি)    |    ০৯:৩৭ এএম, ২০২১-০২-০৬

প্রকৃতির এত রুপ,সবুজের আবরণে সেজেছে আপনমনে


 প্রকৃতির এত রুপ স্বচক্ষে না দেখলে কেউ বুঝতেই পারবেন না,সত্যি ইচ্ছে হয় নিজেকে হারাই তাহারই আলিঙ্গনে, যে কোন ভ্রমণপিপাসু এখানে আসার পর এই অনুভূতি না হয়ে উপায় নেই।এমন প্রকৃতির অপরুপ সুন্দর জায়গাটির নাম টাঙ্গুয়ার হাওরের হাতিরগাদা কান্দা।ভারতের মেঘালয় পাহাড়ের বুক চিরে নেমে আসা আঁকাবাকা রাস্তা দুপাশে সারিবদ্ধ করচের গাছ, এর পাশেই রয়েছে পাখির অভয়াশ্রম লেছুয়ামারা ও হাতিরগাদা বিল।নীল আকাশের গায়ে পাহাড়ের হেলান আর সবুজের আবরণে অপরুপ সৌন্দর্যে সাজানো সারিবদ্ধ করচের বাগান  তার পাশেই  পরিযায়ী পাখিদের কিচিরমিচির ধ্বনি যে কোন ভ্রমন পিপাসুদের বিমোহিত করবে।দেশের এই প্রান্তিক জনপথে স্রষ্টা যেন প্রকৃতি -অকৃপন হাতে বিলিয়ে দিয়েছে অফুরন্ত সম্পদ,সম্ভাবনা আর অপরুপ নৈসর্গিক সৌন্দর্য।সারিবদ্ধ হিজল করচ সহ বিভিন্ন জাতের গাছ-গাছালি আর হাওরের বুকে জলজ উদ্ভিদ লতা,গুম্ম,স্বচ্ছ জলরাশি, বিরল ও বিলুপ্ত প্রায় নানা জাতের মৎস্য সম্পদ আর পরিযায়ী পাখিদের এক উপযুক্ত আবাস্থল। 
প্রাকৃতিক সৌন্দর্য ও মূল্যবান সম্পদের কারনেই টাঙ্গুয়ার হাওর বাংলাদেশের মানচিত্রে এক উজ্জ্বল নক্ষত্র হয়ে রয়েছে। এ হাওরটি কে ২০০০সালের ৬,জানুয়ারি রামসার সাইট ঘোষণা করা হয়।সে অনুযায়ী ১০জুলাই আন্তর্জাতিক রামসার কনভেনশনে স্বাক্ষর করেন কর্তৃপক্ষ, এতে রামসার তালিকায় বিশ্বের ৫৫২টি গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহ্যের মধ্যে টাঙ্গুয়ার হাওরের নাম উঠে আসে।ফলে দেশের মানুষ হাওরটিকে নতুন করে জানার সুযোগ পান।এবং দেশ-বিদেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ভ্রমণপিয়াসী মানুষ হাওরে ভীড় জমাতে শুরু করেন এই হাওরের পরিবেশ -প্রকৃতি দেখার আশায়। 
কিন্তু সৌন্দর্যের লীলাভূমি এই টাঙ্গুয়ার হাওর পর্যটকদের কাছে যেমন এক অনন্য স্থান,তেমনি এখানে সড়কপথে পৌঁছাতে যে দুর্ভোগ মানুষকে পোহাতে হয় তা এক নিদারুণ কষ্টের। প্রকৃতির কাছে পাওয়া অন্যন্য সৌন্দর্যের আনন্দের পুরোটাই থমকে যাচ্ছে এখানকার সড়কপথে যোগাযোগব্যবস্থা। 
সরেজমিনে দেখা যায় সুনামগঞ্জ তাহিরপুর সদর থেকে শ্রীপুর বাজার হয়ে টাঙ্গুয়ার হাওরে সড়কপথে পৌঁছাতে রাস্তা যেন মৃত্যুরকূপ। কাচা রাস্তা খানাখন্দ ও উঁচুনিচু রাস্তায় প্রচন্ড ঝাঁকুনিতে অসুস্থ হয়ে পড়ছে অনেকেই। দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে অনেক যানবাহন। তাহিরপুর থেকে টাঙ্গুয়ার হাওর ওয়াচ-টাওয়ার এলাকায় পৌঁছাতে যেখানে সময় লাগার কথা মাত্র আধাঘন্টা  সেখানে সময় লাগছে এক থেকে দুই ঘন্টা, তারপরেও অধিকাংশ রাস্তায় বৃষ্টি হলেই কাদা হয়ে যানবাহন চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়ে।হেঁটে যাওয়াও কষ্টসাধ্য। আরো বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে এ এলাকায় কোন ধরনের পাবলিক টয়লেট নেই, এতে করে চরম ভোগান্তির শিকার টাঙ্গুয়ার হাওরে আসা পর্যটকদের। বিশেষ করে নারী পর্যটকদের ভোগান্তির যেন শেষ নেই। কারণ রাজধানী টাকা সহ বিভিন্ন স্থান থেকে সারারাত লম্বা জার্নি করে সুনামগঞ্জ পৌঁছে তারাহুরো করে যথাসময়ে ফেরার জন্য মোটরসাইকেল কিংবা সিএনজি করে হাওরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়, হাওরে পৌছানোর পর ফ্রেশ হতে তাদের জন্য কোন বাথরুম বা পাবলিক টয়লেটের ব্যবস্থা নেই।যদিও টাঙ্গুয়ার হাওরে ঘুরতে আসা পর্যটকদের সুবিধার্থে  ১লক্ষ টাকা ব্যয়ে গত ১৮-১৯ অর্থবছরের ২০১৯-২০ সালে এলজিএস এর অর্থায়নে, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের অধীনে স্থানীয় ইউপি সদস্য মোঃ সাজিনুর মিয়ার তথ্যাবদানে   পাবলিক টয়লেট এর নির্মাণ কাজ শুরু হয়,কিন্তু অদৃশ্য কারনে টয়লেটের নির্মাণ কাজ শেষ না হওয়ায়, টয়লেটটি  ব্যবহারে অনুপযোগী হয়ে বর্তমানে পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে।
টাঙ্গুয়ার হাওর কেন্দ্রীয় সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক আহম্মদ কবির এর কাছে জানতে চাইলে উনি বলেন প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরুপ লীলাভূমি আমাদের এই টাঙ্গুয়ার হাওর, পর্যটন শিল্প বিকাশের সম্ভাবনা সমুহ থাকা সত্ত্বেও স্বাধীনতার ৪৯বছর পেরিয়ে গেলেও আমরা খুব একটা সামনের দিকে এগিয়ে যেতে পারিনি। এই পর্যটন খাতে সরকারের বিপুল পরিমাণ অর্থ উপার্জন ও স্থানীয় হাওর পাড়ে বসবাসরত জনগোষ্ঠীর বিকল্প কর্মের সম্ভাবনা থাকলেও বরাবরই উপেক্ষিত থেকেছে। পর্যটন শিল্প বিকাশের পথে আমাদের পর্বতসমূহ সমস্যা নিয়ে এগিয়ে যেতে হচ্ছে। এ অঞ্চলের যোগাযোগ ও অবকাঠামোর  ব্যবস্থা অনুন্নত ও সুবিধাজনক না থাকায়,পর্যটকদের যাতায়াতে ঝুঁকি ও খরচও তুলনামূলক বেশি হওয়ায় আমরা পর্যটক আকর্ষণে ব্যর্থ হচ্ছি।অথচ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অপরুপ লীলাভূমি টাঙ্গুয়ার হাওরে পর্যটকদের আকর্ষণ করার মতো অনেক সম্পদ রয়েছে। উনি বলেন দেশের  অনেক অঞ্চল পর্যটন খাতে আয়ের উৎস খুঁজে পেয়েছে, আমাদের এ অঞ্চলে  টাঙ্গুয়ার হাওরেই রয়েছে একাধিক পর্যটকদের আকর্ষণীয় স্থান।এ অঞ্চলের আবহাওয়া ভৌগোলিক অবস্থান,সর্বোপরি পরিবেশ সবই পর্যটন শিল্পের অনুকূলে। কিন্তু কর্তৃপক্ষের অদৃশ্য কারনে যথাযথ পদক্ষেপের অভাবে এই খাতে কাঙ্ক্ষিত উন্নতি হচ্ছে না। সঠিক কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা গেলে এ অঞ্চলের মানুষের অর্থনৈতিক ও সামাজিক উন্নয়নে পর্যটন শিল্পে অন্যতম ভূমিকা পালন করতে পারবে।

রিটেলেড নিউজ

তাহিরপুরে চুরিতে বাঁধা দেওয়ায়,চোরের ছুরিঘাতে গ্রাম পুলিশ নিহত

তাহিরপুরে চুরিতে বাঁধা দেওয়ায়,চোরের ছুরিঘাতে গ্রাম পুলিশ নিহত

আহাম্মদ কবির (সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি) : সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে চুরিতে বাঁধা দেওয়ায়, চোরের ছুরিঘাতে আব্দুর রউফ নামের এক গ্রাম পুলিশ নিহত হ...বিস্তারিত


তাহিরপুরে মাছের প্রজনন মৌসুমে মা মাছ রক্ষায়,উপজেলা প্রশাসনের মাইকিং

তাহিরপুরে মাছের প্রজনন মৌসুমে মা মাছ রক্ষায়,উপজেলা প্রশাসনের মাইকিং

আহাম্মদ কবির (সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি) : মা মাছের প্রজনন মৌসুমে মা মাছ রক্ষায়,টাঙ্গুয়ার হাওর কেন্দ্রীয় সার্বিক গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির ...বিস্তারিত


প্রজনন মৌসুমে মা মাছ নিধনের প্রস্তুতি

প্রজনন মৌসুমে মা মাছ নিধনের প্রস্তুতি

আহাম্মদ কবির (সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি) : হাওর ও নদনদীর প্রাকৃতিক পরিবেশ দিনের পর দিন ধ্বংস হতে চলছে,স্থানীয় স্বার্থান্বেষী মানুষের অনৈতিক...বিস্তারিত


তাহিরপুরে ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে বখাটেদের হামলায় একই পরিবারের ৮জন আহত

তাহিরপুরে ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে বখাটেদের হামলায় একই পরিবারের ৮জন আহত

আহাম্মদ কবির (সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি) :  সুনামগঞ্জের তাহিরপুরে ইভটিজিংকে কেন্দ্র করে বখাটেদের দাড়াঁলো অস্ত্রের আঘাতে এক সংখ্যালঘু পরি...বিস্তারিত


তাহিরপুর কাজের দাবিতে শ্রমিকদের  মানববন্ধন

তাহিরপুর কাজের দাবিতে শ্রমিকদের মানববন্ধন

আহাম্মদ কবির (সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি) : সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের কর্মহীন শ্রমিকরা যাদুকাটা নদীতে  কাজের দাবিতে  মানববন্ধন করেছে।    ...বিস্তারিত


জনদুর্ভোগ লাঘব করলেন নিভৃতচারী সমাজসেবক আলহাজ্ব আলকাছ উদ্দিন খন্দকার

জনদুর্ভোগ লাঘব করলেন নিভৃতচারী সমাজসেবক আলহাজ্ব আলকাছ উদ্দিন খন্দকার

লক্ষ্মীপুর৭১অনলাইন : রাজু আহমেদ রমজান সুনামগঞ্জ. গণমানুষের দুর্ভোগ লাঘব করতে নিজ অর্থায়নে রাস্তা মেরামত করালেন সুনাম...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

হয় মিটার ভাড়া বাদ দিন নতুবা আমাদের জমির ভাড়া দিন (পল্লী বিদ্যুৎ)

হয় মিটার ভাড়া বাদ দিন নতুবা আমাদের জমির ভাড়া দিন (পল্লী বিদ্যুৎ)

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি ব্যুরো(রবিন হোসেন তাসকিন) : রবিন হোসেন তাসকিন  শেখ হাসিনার উদ্দ্যেগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ। বর্তামানে প্রায়ই অধিকাংশ ঘরে বিদ্যুৎ ...বিস্তারিত


লক্ষ্মীপুরে ডোবা থেকে নারীর মরদেহ উদ্ধার

লক্ষ্মীপুরে ডোবা থেকে নারীর মরদেহ উদ্ধার

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি ব্যুরো(রবিন হোসেন তাসকিন) : লক্ষ্মীপুরে ডোবা থেকে চম্পা বেগম (৬৫) নামে এক বৃদ্ধার মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার (১১ অক্টোবর) দু...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর