লক্ষ্মীপুর   বুধবার, ৮ জুলাই ২০২০  

শিরোনাম

ভাই-বোনের মধুর সম্পর্ক " লেখকঃ আব্দুল কাদের

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি (ইসমাইল খাঁন সুজন)    |    ১২:০৯ পিএম, ২০২০-০৬-২৮

ভাই-বোনের মধুর সম্পর্ক

কিশোর বয়সে অদ্ভুত এক জিনিস  আমার মাথায় ঘুর ঘুর করতো। আমাদের বাড়িতে সবার ছোট বোন আছে। কিন্তু আমার নাই কেন? বোনের অভাব পূরণ করতে আমাদের বাড়ির সুমন আর টিপুর বোনদের কোলে নিতাম, আদর করতাম, দু পায়ের উপর রেখে ঘুম পাড়াতাম, না ঘুমালে খাবার খাইয়ে দিতাম, সারা বাড়ি তাদের নিয়ে ঘুরতাম। স্কুলে ক্লাসের ফাঁকে  রাব্বি আর তারেক বন্ধুর ছোট বোনদের গল্প শুনতাম আর আফসোস করতাম ইশশ আমারো যদি একটা ছোট বোন থাকতো! আমায় মিষ্টি সুরে ভাইয়া ডাকতো। ছোট থাকতে মাকে হরেক রকমের প্রশ্ন করতাম। একদিন স্কুল থেকে এসে মাকে দেখি আসরের নামাজ পড়ছেন। নামাজ শেষে মাকে গিয়ে প্রশ্ন করি আচ্ছা মা সবার ছোট বোন আছে আমার নাই কেনো?  মা হেসে বললেন, আল্লাহর কাছে চাইতে। আল্লাহর কাছে চাইলে নাকি সব পাওয়া যায়।   আর আমি নামাজ পড়ে দু হাত তুলে আল্লাহর কাছে একটি বোন চাইলাম। আর আল্লাহ যেনো আমার আশা পূরণ করলেন।

দিনটি ছিল ২৬ শে জুন ২০১০ ইং ফজরের নামাজের একাটু পর বাহিরে দাঁড়িয়ে আম্মুর জন্য দোয়া করছি। আব্বুকে দেখলাম চিন্তিত মুখে রাস্তার দিকে হেটে চলে যেতে। ছোট ভাইটা আমার হাত ধরে দাঁড়িয়ে আছে। হঠাৎ আমার এক দাদী এসে বলেন, কাদের তোর বোন হয়েছে। এটা শুনে আমি আনন্দে যেনো আত্নহারা হয়ে গেলাম। রাস্তার পানে দিলাম এক দৌড়। আব্বুকে খুজতেছিলাম, হায়রে কোথাও খুঁজে পাচ্ছিলাম না। আবার বাড়িতে দিলাম দৌড়। বাড়িতেও নাই, রাস্তার দিকে তাকিয়ে দেখি আব্বু বাড়ির দিকে আসতেছে। দৌড়ে গিয়ে আব্বুকে জড়িয়ে ধরে বললাম আব্বু আমাকে টাকা দেন। আমার ছোট বোন দুনিয়ায় আসছে।  আমি ছোট বোনের জন্য জামা কিনবো।  বাড়ির সবার জন্য মিষ্টি কিনে আনবো। বাবাকে দেখলাম বাবাও অনেক খুশি হয়েছেন। প্রথমবার বোনের মুখের দিকে  তাকিয়ে মনের তৃপ্তিতে আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করলাম। মহান আল্লাহ আমার আশা পূরণ করলেন। আমার জীবনের সবচেয়ে আনন্দের ছিলো সেই দিন। আজো সে দিনের কথা মনে পড়লে মুখে এক চিলতে হাসি ফুটে। আমার বোনের নামটি আমিই রাখি। স্কুলে যেতাম ঠিকই কিন্তু মন পড়ে থাকতো বোনের কাছে। স্কুল থেকে এসেই আগে বোনকে আদর করতাম। দিনে শত শত আদর করতাম।  ঘুমালেও আদর করতাম। খাবার খাইয়ে দিতাম, গোসল করিয়ে দিতাম মাঝে মাঝে সাজিয়ে দিতাম। আমার দিনগুলো যেনো আনন্দে ভরে যেতে লাগলো। আমি যদি ব্যথা কিংবা মরে যাওয়ার অভিনয় করতাম বোন আমার গলা ধরে কি যে কান্নাকাটি করতো।  আমার বোনকে আমি আপু মনি ডাকতাম কখনো বুবু বলে ডাকতাম। অনেকে আমাকে নিয়ে হাসতেন। সবাই বলতো আমি নাকি বোন পাগল। আমিতো এখনো তাকে আপু বলে ডাকি। 

দিনে দিনে আপুনি বড় হতে লাগলো। আর আজ তার দশ বছর হয়ে গেলো। ভাবতেই  অবাক লাগে আমার আপুমনি এখন ক্লাস ফাইভে পড়ে। বছরগুলো যেনো কত দ্রুত চলে যায়। আসলেই সুখ আর আনন্দের দিন অতি তাড়াতাড়ি চলে যায়।  আমার বোনের চাহিদাগুলো অতি সাধারণ। তার আবদারগুলো কখনোই প্রকাশ করেনা। সামান্যতেই তাকে খুশি করা যায়। আমার বোন তার কোনো আবদার মুখে বলতে চায়না। কিন্তু ভাইয়ের মনতো বুঝে। তার জন্য চকবার আইসক্রিম, লিচু,চকলেট আর অল্প অল্প টাকা জমিয়ে জামা কিনে বোনকে দিতে পারাটাই ছিলো  অনেক আনন্দের। আমার বোনটা অনেক বোনের চেয়ে আলাদা। সে নিরিবিলি প্রকৃতির। তার  সহজ সরল স্বভাব, কারো সাথে বিবাদ করতোনা,দুষ্টামী ও কম করতো, ঝগড়ারতো প্রশ্নই আসে না। কিন্তু আমার চাচাতো ভাই ইফরান ছিলো দুষ্ট প্রকৃতির। ও প্রতিদিন আমার বোনকে মারতো। কোনো দিন লাঠি দিয়ে বারি দিতো, আবার কোনো দিন হাতে কামোর বসিয়ে দিতো। আর যখন আমার বোন কান্না করতো আমার মনটা খারাপ হয়ে যেতো যেন আমাকেই মারলো। 

জানুয়ারী ২০১৬ ইং তে আমি জীবিকার টানে বাড়ি থেকে বের হই। এভাবে ধীরে ধীরে বোনের কাছ থেকে দূরে চলে যেতে বাধ্য হলাম। শরীরটা দূরে গেলেও আত্নাটা বাড়িতেই যেনো রেখে আসছিলাম।  আমার বোনের সাথে কাটানো স্মৃতি মনে করতাম।  এমনো হয়েছে বোনের কথা কথা মনে করে চোখের জলে বালিশ ভিজিয়েছি। যখন ছুটি পেতাম বাড়িতে ফোন করে বললে আমার আপুমনি দুই তিন ঘন্টা আগেই রাস্তার মাথায় এসে দাঁড়িয়ে থাকতো, রাত হয়ে গেলে ঘুমাতো না বার বার ফোন দিয়ে জিজ্ঞেস করতো, ভাইয়া আপনি আসেন না কেনো!  গাড়ি থেকে নেমে বাড়ি আসামাত্রই বোন আমার, এক দৌড়ে এসে বুকে জড়িয়ে যেতো। আমি যেনো দুনিয়ার চাঁদ পেয়েছি। বোনের মায়াভরা মিষ্টি মুখের দিকে তাকালে সকল দুঃখ কষ্ট ভুলে যাই। আর ছুটি থেকে ফেরত আসার সময় বোনের অভিমানী চেহারা আর চোখের জল আমাকে অনেক পীড়া দেয়।

মহান আল্লাহর কাছ থেকে ছোট বোনই আমার জন্য সবচেয়ে বড় উপহার। আমার বোনের সাথে কাটানো স্মৃতিগুলো আমার জীবনের সেরা স্মৃতি। 
 আমার দেখা পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর হাসি আমার বোনের মিষ্টি হাসি। আজ আমার প্রিয় বোনের শুভ জন্মদিন। শুভ জন্মদিন আপু। আজ বোনের এক দশক পূর্ণ  হয়ে গেলো। অনেক অনেক শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা বোনের  জন্য। তোর উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করি।  আমার বোনের জন্য ছোট একটি কবিতা, 
    "তুই যে আমার আদরের ছোট্ট একটা বোন,
     সবার থেকে ভালোবাসি তোকেই আমি শোন।
     তোর চাহিদা সামান্যই, সহজ সরল স্বভাব,
   অভিমান তোর আসে নারে সইতে হলেও অভাব।
     এমন লক্ষী বোনটি বল,কয়টি ভাগ্যে হয়,
    যুদ্ধ ছাড়াই করলিরে তুই ভাইয়ের হৃদয় জয়।"

দোয়া করি আমার বোন সহ পৃথিবীর সকল বোন ভালো থাকুক। সুখ ও আনন্দে ভরে উঠুক সকল বোনদের জীবন। নিরাপদ হোক তাদের পথচলা। আমার বোনকে শিক্ষিকা বানানোর স্বপ্ন মনের মাঝে রয়েছে। আমি চাই সে যেনো একজন আদর্শীক মানুষ হিসেবে গড়ে উঠতে পারে।  সবাই দোয়া করবেন আমার বোনের জন্য সে যেনো বেছে থাকে এবং আমাদের স্বপ্ন পূরণ হয়।

রিটেলেড নিউজ

গ্রাম্য আদালত সম্পর্কে জনগনকে সচেতন করা জরুরী।

গ্রাম্য আদালত সম্পর্কে জনগনকে সচেতন করা জরুরী।

লক্ষ্মীপুর রামগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধি(লোকমান হোসাইন) : গ্রামীন জনগোষ্ঠির ন্যায় বিচার নিশ্চিত ও জেলা জজ আদালতে মামলার জট কামানোর লক্ষ্যে ২০০৬ সালের এক আদ...বিস্তারিত


চরফ্যাশনে অপহরণের  অভিযোগে আটক ১

চরফ্যাশনে অপহরণের অভিযোগে আটক ১

এম.এ নোমান চৌধুরী(চরফ্যাশন, ভোলা প্রতিনিধি) : চরফ্যাশন উপজেলার দুলারহাট থানা পুলিশ নবম শ্রেণির ছাত্রীকে অপহরণের অভিযোগে পুলিশ মঙ্গলবার (০৭ জুল...বিস্তারিত


বাঙ্গাখাঁয় নিজ উদ্দ্যেগে উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছেন জনপ্রতিনিধি মিজানুর রহমান (মিলু)

বাঙ্গাখাঁয় নিজ উদ্দ্যেগে উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছেন জনপ্রতিনিধি মিজানুর রহমান (মিলু)

মোঃ রাহাত হোসেন (লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি) : লক্ষ্মীপুর জেলার বাঙ্গাখাঁ ইউনিয়ন পরিষদের ০৭নং ওয়ার্ডের জন নন্দিত মেম্বার ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ...বিস্তারিত


গল্পঃ জিবনের শেষ কল - আরিফুল ইসলাম

গল্পঃ জিবনের শেষ কল - আরিফুল ইসলাম

লক্ষ্মীপুর৭১অনলাইন : জিবনের শেষ কল           লেখক - আরিফুল ইসলাম  আরিফ-- হ্যালো কে  আমি - আমি আরিফ -  আমি কে সাথী&n...বিস্তারিত


গাইবান্ধায় প্রথম আলো ট্রাষ্টের ত্রাণ বিতরণ

গাইবান্ধায় প্রথম আলো ট্রাষ্টের ত্রাণ বিতরণ

গাইবান্ধা প্রতিনিধি : আল কাদরি কিবরিয়া সবুজ পাখি বেগমের (৫০) বাড়ি গাইবান্ধার গোঘাট গ্রামে। গাইবান্ধা সদর উপজেলার কামার...বিস্তারিত


পলাশবাড়ীতে দাদন ব্যবসায়ীদের নিকট টাকা নিয়ে অনেকেই জমি, ঘর-বাড়ী হারিয়ে হয়েছেন নিঃস্ব- (পর্ব-২)

পলাশবাড়ীতে দাদন ব্যবসায়ীদের নিকট টাকা নিয়ে অনেকেই জমি, ঘর-বাড়ী হারিয়ে হয়েছেন নিঃস্ব- (পর্ব-২)

গাইবান্ধা প্রতিনিধি : আল কাদরী কিবরীয়া সবুজ গাইবান্ধার পলাশবাড়ীতে দৈনিক কিস্তি থেকে শুরু করে চেক বন্ধক, সাপ্তাহিক ও মাস...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

হয় মিটার ভাড়া বাদ দিন নতুবা আমাদের জমির ভাড়া দিন (পল্লী বিদ্যুৎ)

হয় মিটার ভাড়া বাদ দিন নতুবা আমাদের জমির ভাড়া দিন (পল্লী বিদ্যুৎ)

স্টাফ রিপোর্টার : শেখ হাসিনার উদ্দ্যেগ ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ। বর্তামানে প্রায়ই অধিকাংশ ঘরে বিদ্যুৎ আছে। প্রতিমাসে দিতে হ...বিস্তারিত


লক্ষ্মীপুর ইউপি চেয়ারম্যান পরিবার পরিকল্পনার স্বাস্থ্য কর্মীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ

লক্ষ্মীপুর ইউপি চেয়ারম্যান পরিবার পরিকল্পনার স্বাস্থ্য কর্মীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ

লক্ষ্মীপুর জেলা প্রতিনিধি ব্যুরো(রবিন হোসেন তাসকিন) : চৌকিদার দিয়ে ডেকে এনে পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের পরিদর্শক আকবর হোসেনকে মারধর করেছেন লক্ষ্মীপুর সদ...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর